১২ আগস্ট, ২০১১

ঘুম ভাঙানিয়া, দুখ জাগানিয়া বৃষ্টি



আজ ন্যাশানাল হাইওয়ে-৬ এর ওপর দিয়ে খড়গপুর থেকে কোলকাতায় এলাম  প্রচন্ড বৃষ্টির মধ্যে দিয়ে  । সেই সাথে হাইওয়ের দুধারে পশ্চিম মেদিনীপুর হয়ে পূর্ব মেদিনীপুর ,হাওড়া ও সব শেষে দক্ষিণ চব্বিশ পরগণা দিয়ে কলকাতায় ঢুকলাম । মেদিনীপুর ভাসছে জলে.. থৈ থৈ বন্যায় প্রকৃতি উদ্দাম নৃত্য করছে  । বন্যার করালগ্রাস হাওড়াকে অতটা ছোঁয়নি যতটা ছুঁয়েছে মেদিনীপুর জেলাকে । গ্রাম গুলি, ধানক্ষেত সব জলে ডোবা । এত কাছ থেকে বন্যা দেখেছিলাম কলকাতায় ১৯৭৮ সালে ভাদ্রমাসে। অবিশ্যি কলকাতায় ভারিবর্ষায় প্রতিবছরই জল জমে যায়  । কিন্তু মৌসুমীবায়ুর প্রভাব্, ঘূর্ণাবর্ত, ভরাকোটালে নদীতে বান আসা এবং পর্যাপ্ত বৃষ্টির ফলে নদীর ব্যারাজের স্লুইস গেট খুলে দিয়ে জলছাড়া এই সবকটির সম্মিলিত ফল কিন্তু বন্যার রূপ নেয় । এবছর ও মনে হচ্ছে তেমনটি হতে চলেছে  । বিশাল রূপনারায়ণ নদীর ওপরে কোলাঘাট  ব্রিজ পেরোলাম ভয়ে ভয়ে । জলছাড়ার ফলে যদি জল বেড়ে যেত তাহলে কি হত ! অসম্ভব বৃষ্টি হচ্ছিল কোলাঘাটে রূপনারায়নের বুকে । দুকুল ছাপানো হাসি সেই নদের ।


কোনা এক্সপ্রেস ওয়ে দিয়ে কোলকাতায় ঢুকে গঙ্গা পেরোতে গিয়ে দেখলাম তার বর্ষার ভরা যৌবন । সেকেন্ড হুগলি ব্রিজ বা বিদ্যাসাগর সেতুর ওপর থেকে ভারি সুন্দর লাগছিল তার ঢল ঢল রূপ!  বৃষ্টি তখন অঝোরে ঝরছে । শেষ শ্রাবণের ধারাবর্ষণ । আকাশের ছন্নছাড়া কালচে ধূসর মেঘ ভেসে ভেসে ঝোড়ো হাওয়ার সাথে খেলাচ্ছলে জলবর্ষণ করে চলেছে অবিরত । দূর থেকে ইডেন গার্ডেন্স এর ভেজা ফ্লাডলাইট, ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়ালকে দেখা গেল আবছাভাবে ।  বৃষ্টির মাদকতায় শ্রাবণ যেন ঘুমপাড়ানি গান গেয়ে চলেছে বৃষ্টির সুরে ।  কোলকাতা হয়ত কর্মব্যস্ত তখন । হয়ত বা অলস দুপুরঘুমে অচ্ছন্ন । হয়ত কার ভাতঘুম কেড়ে নিল এই বৃষ্টি । চোখ খুলে দেখলাম ভবানীপুরের মোড় । 

১১টি মন্তব্য:

Mahasweta বলেছেন...

বেশ একটা বর্ষার ছবি দেখলাম।

Bunny বলেছেন...

bah!

সুশান্ত কর বলেছেন...

OWAO! এভরা শ্রাবণে আপনি নিশ্চয়ই একটা রবীন্দ্র সঙ্গীত গুনগুনাচ্ছিলেন। তার একটা ভিডিও জুড়ে দিলে স্বাদ পূর্ণ হতো।

indira mukerjee (ইন্দিরা মুখার্জি) বলেছেন...

thanks Anannya, Mahasweta ar Sushanta!
@ Sushanta, na bhai gan gaibar abostha te chhilam na .. jol chherechhe nadi theke khabore shune bhoi peye kunkre bosechhilam ... jadi highway er opor diye flood hoye jai tabe Kolkata pouchhabo ki kore... khub tensed hoye gari chalachchhilen amar pasher bhadrolokti...

সুশান্ত কর বলেছেন...

তবে এই রুদ্র রূপ নিয়ে কোন কবিতা আসছে না এখন?

Say Namaste! বলেছেন...

What a picturesque write up... Tomar lekhay praner chhoya peye besh laglo Indira. Bohu dur theke boshe Banglar chobi dekhte pelam .

indira mukerjee (ইন্দিরা মুখার্জি) বলেছেন...

thank you Sutapa... tumi ta bose bhabo sudurer itikatha....
@Sushanta, kabita ekhon jol e bhaschhe... bristi biday na hole ar kabita asbe na mathay....

সুশান্ত কর বলেছেন...

এ যে বড় অনাসৃষ্টি!
তুই যা না , যারে বৃষ্টি!

D K Mitra বলেছেন...

বাঃ! এ তো কবিতাই!

indira mukerjee (ইন্দিরা মুখার্জি) বলেছেন...

Sushanta, theme gelen kano? besh to cholchhilo Bristir chhora...
@Mr. Mitra bhalo laglo apni porlen bole....

সুশান্ত কর বলেছেন...

ওমা! আমিই যদি লিখে ফেললাম, তবে আর আপনার ভাগে রইবে কি? আমি শুধু ধরিয়ে দিলাম, এবার আপনি লিখুন দেখি!