৩০ জুলাই, ২০১০

আছে বন্ধ কর্মনাশা এমন ছুটি সর্বনাশা !!!


আবার একটা ফুল ওয়ার্কিং ডে ...আমরা বন্ধ করেছি চাকা ! আমি কোন দল বন্ধ ডেকেছে কি কারণে বন্ধ ডেকেছে সেটা আলোচনা করছিনা এখন । একটা কাজের দিনে মানুষ কে এভাবে ঘরে বন্দী করে রেখে দিলে কি সব সমস্যার সমাধান হবে? বন্ধই কি প্রতিবাদের একমাত্র ভাষা ? স্কুল, অফিস, হাসপাতালের রোগী সকলের হয়রানির একশেষ । যাদের দূরপাল্লার ট্রেনের টিকিট কাটা রয়েছে তাদের কথা একবার ভাবুন তো ! আজ আমাদের এক পরিচিতের বাড়িতে একটি অনুষ্ঠান ছিল তার সেই নিমন্ত্রিতদের এক এক করে টেলিফোন করে সেই অনুষ্ঠান ক্যানসেল করতে হল কারণ তার কেটারার জানিয়ে দিয়েছিল যে বন্ধের দিনে সে কাজ করতে পারবে না । বলুন তো কেমন হল তার হয়রাণি ! আমার বাড়িতেই ধরুণনা আমার কর্তার খড়গপুরে সি আই আই এর একটি কনফারেন্সে লেকচার দেবার কথা ছিল, তার প্রস্তুতি, স্লাইড শো সব কিছু তাড়াতাড়ি তৈরী করল সে । তারপরই জানতে পারল বন্ধ ডাকা হয়েছে ফলে সি আই আই এর মিটিংও ক্যান্সেল । আমার ভাই পুণায় সায়েন্টিস্ট । সে জানাল তাদের অফিসে ফরেন ডেলিগেট আসার কথা ছিল আজ । বলুন তো এভাবে কোনো সভ্য দেশের সায়েন্টিষ্ট কে যদি জানাতে হয় " না ভাই আজ এস না, আজ আমাদের এখানে সব কিছু বন্ধ থাকবে" এতে দেশের ব্যবসা বাণিজ্য রক্ষা ই বা হবে কি করে আর একদিনের বন্ধে সারাদেশের কতটা অর্থনৈতিক ক্ষতি হয় সে তো আমরা জানি । আমরা হলাম গিয়ে জ্ঞানপাপী । কালিদাসের মত যে ডালে বসি সেই ডালেই কুড়ুল মারি । কথায় বলে না ? আপন ভাল পাগলেও বোঝে, কিন্তু আমরা জানি সব বুঝি সব কার্যকালে দেখাই না । একটা লং উইকেন্ড সেলিব্রেট করছি.... বাড়ি বসে খাচ্ছিদাচ্ছি, ব্লগিং করছি, মাংসভাত খেয়ে দিবানিদ্রা যাচ্ছি । আহা কি আরামেই না আছি ।


এমন দেশটি কোথাও খুঁজে পাবে নাকো তুমি, বনধ্‌ পালনে ওস্তাদ সে যে আমার জন্মভূমি !!!

1 টি মন্তব্য:

হাসিব বলেছেন...

বিকল্প উপায়ে তো কাজ হয় না । কি করা যায় বলুন তো?